571)(Story-26-13)Militant Bases. (জঙ্গি ঘাঁটি।) - Wr Read Count : 58

Category : Stories

Sub Category : Historical Fiction
571 http://ow.ly/wTJh1036lN7 )(Story-26-13)Militant bases. (জঙ্গি ঘাঁটি।) - Written by Junayed Ashrafur Rahman http://ow.ly/efEw102XXHZ ✒ 

(1- http://ow.ly/YPBS103598L, http://ow.ly/cJbg103greW) https://write.as/3wqfrhk82qylg

# Story #Fantasy #Adventure #History #Theology #Politics #Wisdom #Comedy #Suspense 

Badr Ali also smiled and said, "You will know while you are at this base."

 I said, "You answered me about how you are forwarding. You still say the same thing."

 Badr Ali said, "There is only one answer to these two. Because we are moving forward to seize power."

 I said, "If you surrender with weapons, you will surely win the Nobel Peace Prize."

 Badr Ali said with a smile, "When people are tempted by the Nobel Prize, they move away from their goals and objectives. Then they are only anxious for the Nobel Prize. And they are anxious for the month of October every year."

 I insisted, "What's the matter? Who did that?"

 - It was Hitler.

 - How did he do?

 - There were rumors about Hitler winning the Nobel Peace Prize. But he was not awarded the Nobel Prize for several years, when he invaded Poland and started World War II. "

 I wondered and said, "Did Hitler start World War II to win the Nobel Peace Prize?

 - Of course. That's how inferior people are. He does not hesitate to make fun of the lives of millions of people for his own petty interests and to waste thousands of crores of money of the people. Hitler also played with people's lives to win the Nobel Peace Prize and wasted German people's money.

 - Well, does the Nobel Committee tempt anyone to win the prize?

 - No.

 - So you said, when people fall into the temptation of Nobel Prize, people move away from their goals and objectives. Why did you say that?

 - Although the Nobel Committee do not tempt anyone, many fell into temptation on their own.

 - How?

   - If a person sees a Nobel laureate and thinks, "His and my merits are equal. I have done what he has done. He has won the Nobel Prize, so I will also get the Nobel Prize." Again many years passed in the hope of the Nobel Prize.
 
   - Who has spent so many years hoping for the Nobel Prize?
 
   - Mao Zedong.
 
   - What kind?
 
   - After seizing power in China, Mao Zedong declared China a republic on October 1, 1949 in Tiananmen Square. He thought that for this reason he would be awarded the Nobel Peace Prize, but he was not given. On October 10, 1972, China invaded India. Despite occupying the Indian state of Arunachal Pradesh, Mao Zedong returned it to India in the hope of winning the Nobel Peace Prize. But he did not win the Nobel Prize. Extremely aggressive, Mao Zedong occupied Tibet, but returned Arunachal Pradesh to win the Nobel Peace Prize. So we are not willing to give up our armed preparations in the hope of winning the Nobel Peace Prize.
 
   - But the honor of the Nobel laureates, will you get these?
 
   - I can't. But when we come to power, we will be able to introduce prizes like the Nobel Prize. As did the sons of King Faisal.
 
   - What kind?
 
   - It was thought that King Faisal would receive the Nobel Peace Prize. But he was not awarded the Nobel Prize. So his sons introduced the King Faisal Award. Also called the Nobel Prize in the Muslim world.
 
   - Why was it thought that King Faisal would be awarded the Nobel Prize?
  
   - King Faisal declared that all Muslims in the world have the right to Saudi Arabia's mineral resources. This is why many thought he would win the Nobel Peace Prize. But his announcement angered many in the royal family. The CIA took this opportunity. And shot and killed him.

 This time I understood why Badr Ali had rejected the offer of Nobel Peace Prize. They do not want the Nobel Peace Prize. But after coming to power, they want to introduce awards like Nobel Prize.
 
 Badr Ali said, "Many people have rejected the Nobel Prize. So there is no reason to give up power in the hope of winning the Nobel Prize."

 I said, "But those who reject the Nobel Prize, have they become great men? It is kind of polite to accept something that is good. Have they become greater gentlemen by rejecting the Nobel Prize?"
 
 Badr Ali then smiled and said, "I don't know. But we will not give up our goals and objectives for the Nobel Prize. That is the final."

 There is no point in offering Badr Ali the Nobel Peace Prize. It is useless to offer a Nobel Prize to someone who wants to usurp state power and introduce an award like the Nobel Prize. So I changed the subject and said, "Well, are you believe Mao Zedong saying, 'The barrel of a gun is the source of all power.' in it? "

 - This policy is completely correct on the battlefield. By seizing power, laws, constitutions, principles and ethics can be made as per one's wish. If there is no power, then there is no opportunity to establish law and constitution. Many laws and constitutions of the world have been established after the great war. And those wars have been fought by the gunmen.

   - Didn't this policy of yours become absolutely violent?

   - We are going to seize power. So choose violent and non-violent - it is useless to judge.
  
   - So you do not follow the non-violent policy of Mahatma Gandhi?

   - Why should I follow Gandhi's policy?

 - Mahatma Gandhi is the symbol of peace in the modern age. Many, including Martin Luther King Jr. and Nelson Mandela, followed Gandhiji.

   - Is Gandhi a symbol of peace? So why was he not awarded the Nobel Peace Prize?

   - There are two answers to this question. The first is that if Gandhiji was awarded the Nobel Peace Prize, the royal family of England will be dissatisfied. That is why the Nobel Peace Prize was not awarded. The second theory is that of a great philosopher. He said, Gandhiji was not awarded the Nobel Prize by the Nobel Committee, so he did not receive the Nobel Peace Prize.

   - Both theories can be right. But the second theory is more to my liking. But in India, especially the BJP and the Left, Gandhiji is harshly criticized. They say, Even Gandhiji's reckless actions made it impossible to understand whether he was violent or non-violent. Since we are not greedy for the Nobel Peace Prize, we do not need to present ourselves as Gandhian or non-violent. And there is no need to say, Gandhiji, Gandhi Baba, Gandhi Abba etc. (Continued) ©️All Right Reserved by Junayed Ashrafur Rahman
24°33'58.6"N 90°41'30.4"E
 http://ow.ly/QvJm1036lYy
Nandail Municipality, Mymensingh, Bangladesh.
Junayedmn1@gmail.com
8801611112262 & 8801711374824
⌨️ Links to my writings ✒ http://ow.ly/BM6O102wF8n
📄 Links to all my pages ✒ 
http://ow.ly/S5LA103gh0h 

বদর আলিও মুচকি মুচকি হেসে বলল, " আমাদের এই ঘাঁটিতে থাকতে থাকতে জানতে পারবা। "

আমি বললাম, " আপনারা কেমন এগিয়ে চলেছেন, সেটার ব্যাপারেও এই উত্তর দিলেন। এখনও একই কথা বললেন। "

বদর আলি বলল, " এই দুটোর উত্তর একটাই। কেননা ক্ষমতা দখলের জন্যই আমরা এগিয়ে চলেছি। "

আমি বললাম, " আপনারা যদি অস্ত্র জমা দিয়ে আত্মসমর্পণ করেন, তবে নিশ্চিতভাবেই শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পাবেন। "

বদর আলি হাসতে হাসতে বলল, "নোবেল প্রাইজের প্রলোভনে পড়লে মানুষ নিজের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য থেকে সরে যায়। তখন শুধু নোবেল প্রাইজের জন্যই উতলা হয়ে থাকে। আর প্রতি বছরের অক্টোবর মাসের জন্য উদগ্রীব হয়ে থাকে।"

আমি জোর দিয়ে বললাম, " এটা কোন কথা হলো ? কে এমন করেছে ? "

- এটা হিটলার করেছে। 

- কেমন করেছে ?

- হিটলারের ব্যাপারে গুজব রটেছিলো, সে শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পাবে। কিন্তু কয়েক বছরেও তাকে নোবেল প্রাইজ দেয়া হয়নি, তখন সে পোল্যান্ড আক্রমণ করে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শুরু করে। "

আমি অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করলাম, " শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পেতে হিটলার দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শুরু করেছিল ? একটা প্রাইজের জন্য এতো বড় অঘটন ঘটিয়েছিল ? "

- অবশ্যই। ছোটলোক তো এমনই হয়। নিজের হীন স্বার্থের জন্য লাখ লাখ মানুষের জীবন নিয়ে তামাশা করতে আর জনগণের হাজার কোটি টাকার অপব্যয় করতেও দ্বিধা করে না। তেমনি হিটলারও শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পেতে মানুষের জীবন নিয়ে খেলেছে আর জার্মানির জনগণের টাকার অপব্যয় করেছে। 

- আচ্ছা, নোবেল কমিটি কি কেউকে প্রাইজের জন্য প্রলোভন দেখায় ?

- না।

- তাহলে আপনি যে বললেন, নোবেল প্রাইজের প্রলোভনে পড়লে মানুষ নিজের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য থেকে সরে যায়। কেন বললেন ?

- নোবেল কমিটি কেউকে প্রলোভন না দেখালেও, অনেকেই নিজে থেকেই প্রলোভনে পড়ে যায়।

- কীভাবে ?

  - কোন নোবেল লরিয়েটকে দেখে কেউ যদি মনে করে, " অমুকের যোগ্যতা আর আমার যোগ্যতা সমান। অমুকে যা করেছে, আমিও তা করেছি। অমুকে নোবেল প্রাইজ পেয়েছে, অতএব আমিও নোবেল প্রাইজ পাব। " এমন চিন্তা থেকে মানুষ নিজে নিজেই নোবেল প্রাইজের প্রলোভনে পড়ে।অনেকেই আবার বহু বছর পার করে দেয় নোবেল প্রাইজের আশায়।
 
  - কে নোবেল প্রাইজের আশায় বহু বছর পার করেছে ?
 
  - মাও সে তুং।
 
  - কী রকম ?
 
  - চীনের ক্ষমতা দখল করার পর ১৯৪৯ সালের ১ অক্টোবর তিয়েন আমেন স্কয়ারে মাও সে তুং চীনকে প্রজাতন্ত্র ঘোষণা করেছিলেন। তিনি মনে করেছিলেন, এই কারণে তিনিকে শান্তিতে নোবেল প্রাইজ দেয়া হবে, কিন্তু দেয়া হয়নি। আবার ১৯৬২ সালের ১০ অক্টোবর ভারতে চীন আক্রমণ করেছিল। ভারতের অরুনাচল প্রদেশ দখল করেও মাও সে তুং সেটা ভারতকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন শান্তিতে নোবেল প্রাইজের আশায়। কিন্তু তিনি তাতেও নোবেল প্রাইজ পান নি। অত্যন্ত আক্রমণাত্মকভাবে মাও সে তুং তিব্বত দখল করেছিলেন, কিন্তু অরুনাচল দখল করেও ফিরিয়ে দিয়েছিলেন শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পেতেই। তাই নোবেল প্রাইজের আশায় আমরা আমাদের সশস্ত্র প্রস্তুতি ত্যাগ করতে রাজি নই। 
 
  - কিন্তু নোবেল লরিয়েটদের যে সম্মান, সেটা কি আপনারা এগুলো করে পাবেন ?
 
  - পাব না। কিন্তু আমরা ক্ষমতায় গিয়ে নোবেল প্রাইজের মতো পুরস্কারের প্রবর্তন করতে পারব। যেমনটা বাদশাহ ফয়সালের ছেলেরা করেছেন।
 
  - কী রকম ?
 
  - মনে করা হয়েছিল, বাদশাহ ফয়সাল শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পাবেন। কিন্তু তাকে নোবেল প্রাইজ দেয়া হয় নি। তাই তিনির ছেলেরা প্রবর্তন করেন কিং ফয়সাল এওয়ার্ড। যাকে মুসলিম বিশ্বের নোবেল প্রাইজও বলা হয়।
 
  - বাদশাহ ফয়সালকে নোবেল প্রাইজ দেয়া হবে, এমনটা কেন মনে করা হয়েছিল ?
  
  - বাদশাহ ফয়সাল ঘোষণা করেছিলেন, সৌদি আরবের খনিজ সম্পদে বিশ্বের সকল মুসলমানের অধিকার আছে। এই কারণেই অনেকেই মনে করেছিলেন তিনি শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পাবেন। কিন্তু তিনির ওই ঘোষণা রাজ পরিবারের অনেককেই ক্ষেপিয়ে তোলেছিল। এই সুযোগটাই সিআইএ নিয়েছিল। এবং তিনিকে গুলি করে হত্যা করিয়েছিল। 

এবার বুঝলাম বদর আলি কেন শান্তিতে নোবেল প্রাইজের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে। ওরা শান্তিতে নোবেল প্রাইজ চায় না। কিন্তু ক্ষমতায় গিয়ে নিজেরাই নোবেল প্রাইজের মতো এওয়ার্ড প্রবর্তন করতে চায়। 
 
বদর আলি বলল, " অনেকেই আবার নোবেল প্রাইজ পেয়েও প্রত্যাখান করেছেন। তাই নোবেল প্রাইজের আশায় ক্ষমতা ত্যাগ করার কোন যুক্তি নাই। "

আমি বললাম, " কিন্তু যিনিরা নোবেল প্রাইজ প্রত্যাখান করেছেন, তিনিরা কি আরো বড় মহাপুরুষ হয়ে গেছেন ? কেউ ভালো কিছু দিলে সেটা গ্রহণ করা এক ধরণের ভদ্রতা। তিনিরা নোবেল প্রাইজ প্রত্যাখান করে কি আরো বড় ভদ্রলোক হয়েছেন ? "
 
বদর আলি তখন মুচকি হেসে বলল, " সেটা জানি না। কিন্তু নোবেল প্রাইজের জন্য আমরা আমাদের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য ত্যাগ করব না। এটাই ফাইনাল। "

বদর আলিকে শান্তিতে নোবেল প্রাইজের প্রস্তাব দিয়ে আর লাভ নাই। যে নিজেই রাষ্ট্রক্ষমতা দখল করে নোবেল প্রাইজের মতো এওয়ার্ড প্রবর্তন করতে চায়, তাকে নোবেল প্রাইজের প্রস্তাব দেয়া কিছুটা হলেও বৃথা। তাই প্রসঙ্গ বদল করে বললাম, " আচ্ছা, আপনারা কি মাও সে তুংয়ের উক্তি, 'বন্দুকের নলই সকল ক্ষমতার উৎস।' এতে বিশ্বাসী ? " 

- যুদ্ধক্ষেত্রে এই নীতি সম্পূর্ণ ঠিক। ক্ষমতা দখল করে নিজেদের ইচ্ছা মতো আইন, সংবিধান, নীতি - নৈতিকতা তৈরি করে নেয়া যায়। ক্ষমতাই যদি না থাকে, তবে আইন ও সংবিধান প্রতিষ্ঠারও কোন সুযোগ থাকে না। পৃথিবীর অনেক আইন ও সংবিধান প্রতিষ্ঠিত হয়েছে বড় ধরণের যুদ্ধের পর। আর সেই যুদ্ধগুলো করেছে বন্দুকবাজরাই।

  - আপনাদের এই নীতিটা কি একেবারেই সহিংস হয়ে গেল না ? 

  - আমরা ক্ষমতা দখল করতে চলেছি। তাই সহিংস ও অহিংস বাছ - বিচার করাটাই বৃথা। 
  
  - তাহলে কি মহাত্মা গান্ধির অহিংস নীতি আপনি মানেন না ? 

  - আমাকে কেন গান্ধির নীতি মানতে হবে ? 

- মহাত্মা গান্ধি হচ্ছেন আধুনিক যুগের শান্তির প্রতীক। মার্টিন লুথার কিং জুনিয়র, নেলসন ম্যান্ডেলাসহ অনেকেই গান্ধিজির অনুসারি। 

  - গান্ধি শান্তির প্রতীক ? তাহলে তাকে শান্তিতে নোবেল প্রাইজ দেয়া হয় নি কেন ? 

  - এই প্রশ্নের দুটো উত্তর আছে। প্রথমটি হচ্ছে, গান্ধিজিকে শান্তিতে নোবেল প্রাইজ দেয়া হলে ইংল্যান্ডের রাজ পরিবার অসন্তুষ্ট হবে। তাই শান্তিতে নোবেল প্রাইজ দেয়া হয় নি। দ্বিতীয় তত্ত্বতটা হচ্ছে একজন বড় দার্শনিকের। তিনি বলেছেন, গান্ধিজিকে নোবেল কমিটি প্রাইজ দেন নি, তাই তিনি শান্তিতে নোবেল প্রাইজ পান নি। 

  - দুটো তত্ত্বই ঠিক হতে পারে। কিন্তু দ্বিতীয় তত্ত্বটিই আমার কাছে বেশি পছন্দ হয়েছে। তবে ভারতেই বিশেষ করে বিজেপি আর বামপন্থীরা কঠোরভাবে গান্ধিজির সমালোচনা করে। এমনকি গান্ধিজির হঠকারী কর্মকাণ্ডের কারণে তিনি কি সহিংস নাকি অহিংস, সেটাই বুঝা যেত না। আমরা যেহেতু শান্তিতে নোবেল প্রাইজের লোভী না, তাই নিজেদেরকে গান্ধিবাদী অথবা অহিংস হিসেবে উপস্থাপন করারও দরকার নাই। আর গান্ধিকে গান্ধিজি, গান্ধি বাবা, গান্ধি আব্বা প্রভৃতি বলারও দরকার নাই। (চলবে) ©️All Right Reserved by Junayed Ashrafur Rahman
24°33'58.6"N 90°41'30.4"E
 http://ow.ly/QvJm1036lYy
Nandail Municipality, Mymensingh, Bangladesh.
Junayedmn1@gmail.com
8801611112262 & 8801711374824
⌨️ Links to my writings ✒ http://ow.ly/BM6O102wF8n
📄 Links to all my pages ✒ 
http://ow.ly/S5LA103gh0h 

Comments

  • No Comments
Log Out?

Are you sure you want to log out?